২৩ মে ২০১৮ বুধবার দুপুর ১২টায় প্যালেস্টাইনে সাম্রাজ্যবাদী অন্যায় যুদ্ধ চাপিয়ে দেয়া, সারাদেশে বিনা বিচারে হত্যাকাণ্ড ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের উর্দ্ধগতির প্রতিবাদে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত

23-05-18-1

তারিখঃ ২৩/০৫/২০১৮     প্রেস বিজ্ঞপ্তি

প্যালেস্টাইনে সাম্রাজ্যবাদী অন্যায় যুদ্ধ চাপিয়ে দেয়া, সারাদেশে বিনা বিচারে হত্যাকাণ্ড ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের উর্দ্ধগতির প্রতিবাদে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত

আজ ২৩ মে ২০১৮ বুধবার দুপুর ১২টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্টের উদ্যোগে প্যালেস্টাইনে সাম্রাজ্যবাদী অন্যায় যুদ্ধ চাপিয়ে দেয়া, সারাদেশে বিনা বিচারে হত্যাকাণ্ড, নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের উর্দ্ধগতির প্রতিবাদে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশ শেষে বিক্ষোভ মিছিল বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন জাতীয় জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট (এনডিএফ)’র সহ-সভাপতি খলিলুর রহমান। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট (এনডিএফ)’র সহ-সভাপতি চৌধুরী আশিকুল আলম, সাধারণ সম্পাদক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) ডাঃ এম জাহাঙ্গীর হুসাইন, সহ-সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইয়াসিন, শাহজাহান কবির প্রমুখ। বক্তাগণ বলেন, মধ্যপ্রাচ্যে ভূমধ্যসাগর তীরবর্তী প্রাচীন সভ্যতার পীঠস্থান পবিত্র নগরী জেরুজালেম এবং প্যালেস্টাইনের জনগণের স্বাধীনতার দাবীতে যুগের পর যুগ আন্দোলন-সংগ্রাম করার ধারাবাহিকতায় অবশেষে জাতিসংঘ, যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয়ান ইউনিয়ন ও রাশিয়া চতুস্ট্রয়ের রোড ম্যাপ কার্যকরী করার বিষয়টি যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরাইলের কারণে কার্যত মুখ থুবড়ে পড়ে। বক্তাগণ ইসরাইলের ব্যাপক দমন-পীড়ন, বসতি সম্প্রসারণমূলক অব্যাহত আগ্রাসন ও হত্যাকাণ্ডের বিরুদ্ধে প্যালেস্টাইনের জনগণের লড়াইকে সমর্থন জানিয়ে সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী লড়াইকে অগ্রসর করার আহবান জানান। সারাদেশে মাদক বিরোধী অভিযানের নামে শুরু হয়েছে বিনা বিচারে হত্যাকাণ্ড, বিনা বিচারে হত্যাকাণ্ড রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের জন্ম দেয়। সরকার ভয়াবহ রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের মধ্যদিয়ে তার ক্ষমতা দীর্ঘস্থায়ী করার পরিকল্পনা করছে। মাদক ব্যবসায়ীদের অবশ্যই খুঁজে বের করে আইনের আওতায় কঠিন শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের উর্দ্ধগতি জনজীবনকে দিশেহারা করে তুলছে। অন্যদিকে কৃষক তার উৎপাদিত ফসলের ন্যায্য মূল্য পাচ্ছে না। ধান কাটার মৌসুম চলছে, কৃষক তার ধান ৪০০/৫০০ টাকা কোথাও ৬০০ থেকে সর্বোচ্চ ৭০০ টাকা মণ দরে বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছে। বাজারে চালের দাম এবং ধানের দামে সামঞ্জস্যতা নাই। এমনি ভাবে জনগণ প্রতিনিয়ত শোষিত-নির্যাতিত হচ্ছে, এর বিরুদ্ধে দুর্বার গণআন্দোলনের বিকল্প নেই। তাই আসুন, সাম্রাজ্যবাদ এবং তার দালাল সরকার ও এদেশীয় শোষক শ্রেণীর বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ গণআন্দোলনের মধ্য দিয়ে গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র, সরকার ও সংবিধান রচনার পথ প্রশস্থ করি।

বার্তা প্রেরক

আনোয়ার হোসেন

সদস্য

কেন্দ্রীয় কমিটি

০১৯-১২৩৩-২২১৫

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *